আগামী ৭ জুন পূর্ণিমার চাঁদের বাৎসরিক অনুষ্ঠানের এক যুগ পূর্তি

19
1015
সূফী সম্রাট হযরত মাহবুব-এ-খোদা দেওয়ানবাগী (মাঃ আঃ) হুজুর কেবলাজান ।

বিশেষ সংবাদদাতা : আগামী ৭ জুন, রবিবার দিবাগত রাতে ‘আল্লাহর দেওয়া পুরস্কার: পূর্ণিমার চাঁদে বাবা দেওয়ানবাগীর জীবন্ত প্রতিচ্ছবি’ অনুষ্ঠানটির এক যুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে পূর্ণিমার চাঁদের বাৎসরিক অনুষ্ঠান উদযাপন করা হবে।

তবে করোনা ভাইরাসের কারণে এ বছর অনুষ্ঠানটি কেন্দ্রীয়ভাবে বাবে রহমত, দেওয়ানবাগ শরীফে উদযাপন করা হবে না। কিন্তু এক্ষেত্রে আশেকে রাসুলগণ নিজ নিজ বাড়িতে থেকেই পরিবার পরিজন নিয়ে মহিমানি¦ত রজনিটি উদযাপন করতে পারবেন। তবে আঞ্চলিক দরবারসমূহ, খানকাহ্ শরীফ ও আশেকে রাসুল জাকের মজলিসে সীমিত পরিসরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্তভাবে এ রজনিটি উদযাপন করা যাবে।

উল্লেখ্য যে, ২০০৮ সাল মোতাবেক ১৪২৯ হিজরির শাওয়াল মাসের পূর্ণিমার চাঁদে সর্বপ্রথম মহান আল্লাহ্ দয়া করে তাঁর মহান বন্ধু সূফী সম্রাট হযরত দেওয়ানবাগী (মা. আ.) হুজুর কেবলাজানের জীবন্ত প্রতিচ্ছবি প্রদর্শন করেন। তখন থেকে সূফী সম্রাটের নুরানিময় প্রতিচ্ছবি বিশে^র বিভিন্ন দেশের অগণিত মানুষ সর্বপ্রথম দেখতে পান। সেই থেকে অদ্যাবধি এই অভূতপূর্ব ঘটনাটি প্রতি মাসের পূর্ণিমায় সংঘটিত হচ্ছে। এরই প্রেক্ষাপটে প্রতিবছর শাওয়াল মাসে ‘আল্লাহর দেওয়া পুরস্কার : পূর্ণিমার চাঁদে বাবা দেওয়ানবাগীর জীবন্ত প্রতিচ্ছবি’ অনুষ্ঠানটি উদযাপন করা হয়।

পূর্ণিমার চাঁদের বাৎসরিক অনুষ্ঠান উদযানের বিষয়গুলো নিম্নে দেওয়া হলো-
 দুই রাকাত সালাতুস শুকরের সুন্নত নামাজ’ আদায় করতে হবে।
 এশার ওয়াক্তের ফরজ, সুন্নত, নফল ও বিতেরের নামাজ আদায় করতে হবে।
 মিলাদ শরীফ পাঠ করতে হবে (আনন্দ উৎসবে যেভাবে মিলাদ পাঠ করা হয়)।
 পরিশেষে ওয়াজিফার আমল সম্পন্ন করে আখেরী মুনাজাত করতে হবে।

19 COMMENTS

  1. শুকরিয়া জানাই এই গুরুত্বপূর্ণ ও মহিমান্বিত রজনীর সাক্ষী হতে পেরে। মহান রাব্বুলআলামীনের দরবারে দয়া ভিক্ষা চাই যেন সঠিক ভাবে এই মহিমান্বিত রজনী পালন করে তাহার সন্তুষ্টি অর্জন করতে পারি ।

  2. আশেকে রাসূল গনের জন্য এক মহা নেয়ামতময় রজনী হলো এই পূনিমার চাদের অনুষ্ঠানের রজনী ! পৃথিবীর সূচনা লগ্ন হতে অদ্যাবদি এমন মহানেয়ামতময় ঘটনা ঘটে নাই ! তাই মুক্তিকামী মানুষের মুক্তির মহা নেয়ামত হলো পূনিমার চাদের অনুষ্ঠান পালন করা ! আমীন

  3. আলহামদুলিল্লাহ্, মহান মোর্শেদ বাবা দেওয়ানবাগীর পরশময় নূরের পবিত্র কদম মোবারকে কোটি কোটি শুকরিয়া ও কদম বুচি জানা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here