ঈদের কবিতা

0
330

গীতি নকশা
ঐ আকাশে নতুন চাঁদ হাসে
ড. পিয়ার মোহাম্মদ

ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। পশ্চিম আকাশে রমজানের চাঁদ মুসলিম জাহানকে জানান দিয়ে যায় এক মাস রোজার আগমনী বার্তা। সে রোজার শেষে আবার হাসে শাওয়াল মাসের এক ফালি নতুন চাঁদ। এ চাঁদের হাসি সবার হৃদয়ে ঈদুল ফিতরের পরশ বুলিয়ে যায়। শিরায় শিরায় রচনা করে খুশির ফেনিল চূড়া। আকাশে বাতাসে ছড়িয়ে পড়ে এক অনাবিল আনন্দ হিল্লোল-

গান-১
আয়না তোরা আয় দেখে যা,
আকাশে চাঁদ হাসে।
রমজানের ঐ রোজার শেষে
আজকে শাওয়াল মাসে ॥
নতুন চাঁদের হাতছানিতে
আসমানী তাগিদ,
ধূলির ধরায় সবার ঘরে
এলো খুশির ঈদ।
আনন্দের এক ঢেউ খেলে যায়
আকাশে বাতাসে॥
ছোট বড় সবাই মিলে
দেখছে নতুন চাঁদ,
ধন্য ভেবে আজকে আকাশ
মিটছে সবার সাধ।
খুশির দোলায় দুলছে সবাই
ঈদের অভিলাষে॥
আজকের সূর্যটা জেগেছে হাসি মাখা বদনে। এক ঝলক আলোর পরশ ছুঁয়ে গেছে সবার হৃদয়। প্রকৃতির মাঝে বয়ে গেছে খুশির ফল্গুধারা। ধরণী যেন একটি বছর ধরে এ মুহূর্তেরই অপেক্ষায় ছিল। তাইতো অপেক্ষার পালা বদলে সবাই মেতেছে নতুন সাজে, নতুন ভূষণে। এক সিয়াম সাধনার রহমতে সবার হৃদয়ে ফুটেছে একরাশ কুসুম কলি…।

গান-২
রহমতের সওদা লয়ে,
এলোরে রমজান।
মাগফেরাতে সিক্ত করে
নাজাত করল দান॥
সারা মাসের রোজার শেষে
আজকে খুশির দিন,
রং বেরঙ্গের নতুন পোশাক
তুলনা বিহীন।
চাঁদের হাসি ঈদের খুশি
ভরল সবার প্রাণ॥
ছুটছে সবই ঈদগা মাঠে
বাজছে হৃদয় বিন,
ধনী গরিব নাই ভেদাভেদ
সবাই আজ রঙ্গিন।
সব মেরুতে সুখের পরশ
আনন্দে জয়গান॥
ধনী গরিব আজ একাকার। ভেদাভেদ নাই আশরাফ আতরাফে। সবাই মিলে এক কাতারে দাঁড়িয়েছে জায়নামাজে। পরস্পরের আলিঙ্গনে ভেঙ্গে গেছে হিংসা বিদ্বেষ আর দ্বন্দ্বের দেয়াল। জাগরিত হয়েছে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন। এরই নাম ঈদ, এরই নাম আনন্দ, এরই নাম খুশি…।

গান -৩
আজকে খুশির ঈদ এসেছে,
আজকে খুশির ঈদ।
সবার মুখে আল্লাহ্র বাণী
কালেমা তাওহিদ॥
এক কাতারে মিলছে সবাই
আজকে শুভ দিন,
ছোট বড় ধনী গরিব
সহায় সম্বলহীন।
কোলাকুলির ধূম পড়েছে
নাইকো কারো নীদ॥
হিংসা বিদ্বেষ দূর করেছে
রমজানের রোজায়,
আজকে সবাই সূচি হতে
এসেছে ঈদগায়।
বিবেক এখন দিচ্ছে তাদের আসমানী তাগিদ॥
আজকে সবার হৃদয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মানব প্রীতির উষ্ণ ধারা। ধনীরা তাদের হস্ত প্রসারিত করেছে ধনহীনদের প্রতি। প্রকৃতিতে ধ্বনিত প্রতিধ্বনিত হচ্ছে আনন্দের সুর। অলিতে গলিতে চলছে প্রীতি আর শ্রদ্ধা নিবেদনের মাহেন্দ্রক্ষণ। আপন জনের পরশ পেয়ে সবাই হচ্ছে ধন্য। হৃদয়ের সাথে ঘটছে হৃদয়ের একাত্মতা।

গান-৪
সবাই যেন এক পরিবার
ঈদের খুশিতে।
সৌহার্দ্যের এক বন্যা যেন
বইছে ধরাতে॥
ঘরে ঘরে কোরমা পোলাও আরো কত কি,
পাড়া পড়শী ধনী গরিব
একসাথে দেখি।
হইছে যেন সব একাকার
ঈদের বরাতে॥
ঈদ মোবারক ধ্বনি ঠোঁটে
ভাসছে ধরনী,
লা শারিক এক আল্লাহ্র রাহে
বইছে তরণী।
যে দিকে চাই একই ধ্বনি
হৃদয় মেলাতে॥
ঈদুল ফিতর সবার হৃদয়ে বিলিয়ে গেলো সমান আনন্দ। জীবনের পরতে পরতে প্রতিটি তন্ত্রীতে প্রবাহিত হলো অনাবিল অনুভূতি। শানিত হলো সবার হৃদয়ের অকৃত্রিম আকুতি। অনুভবে জাগ্রত হলো মানবতার চিরন্তন বাণী মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য…।

গান-৫
সবাই খুশি ঈদের দিনে,
আনন্দের বন্যা।
সৌহার্দ্য আর সম্প্রীতিতে দিনটা অনন্যা॥
খালেস দিলে মিলছে সবাই
নাইকো অহংকার,
বেহেশত আজ যেন ধরায়
সবার মনিহার।
বেহেশত আজ যেন ধরায়
সবার মনিহার।
ভেদাভেদের লাগাম ছিঁড়ে
ধরণী ধন্যা॥
এমন খুশির দিন যেন আর
হয়না কভু শেষ,
প্রতিদিনই হোক ঈদের দিন
থাকবে সবাই বেশ।
এ পৃথিবী হবে মধুর
মায়াবী কন্যা॥

হৃদয়ে আজ অনুররণ প্রতিটি দিন প্রতিটি মানুষের জীবনে আসুক ঈদের দিন হয়ে। মানুষ সারাক্ষণ উদ্ভাসিত হোক সম্প্রীতির বন্ধনে, মানবতার পরশে। জীবন আবর্তিত হোক সহমর্মিতার পথ বেয়ে আর সময় কাটুক খুশির অবগাহনে। ধরণীর বুকে বয়ে যাক চিরন্তন আনন্দ ধারা। প্রজ্বলিত হোক অনির্বাণ স্বপ্ন শিখা…।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here