গতি পাবে দক্ষিণাঞ্চলের বাণিজ্য

0
57


বরিশাল সংবাদদাতা: বরিশাল থেকে মাওয়ার অ্যাপ্রোচ সড়ক ও পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকার যাত্রাবাড়ীর দূরত্ব প্রায় ১৮৭ কিলোমিটার। কোনো অঘটন না ঘটলে যাত্রী সাধারণের এই দূরত্ব অতিক্রম করতে লেগে যায় ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা। আর পণ্যবাহী যান মাওয়া ফেরিঘাটে বসে থাকত ৪-৫ ঘণ্টা, এমনকি ২-৩ দিনও। আগামী ২৫ জুন থেকে এই ভোগান্তির অবসান হচ্ছে। এতে খুশি যাত্রী সাধারণ, পরিবহন শ্রমিক ও ব্যবসায়ীরা। তবে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার সিঙ্গেল লেন মহাসড়কে যানবাহনের গতি আরও কমার আশঙ্কা সংশ্লিষ্টদের। এ কারণে আপাতত মহাসড়কের দুই পাশ প্রশস্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার। শিক্ষার্থী শাহরিয়া বলেন, মাওয়া হয়ে ঢাকায় যেতে ফেরিঘাটে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়। অনেক দুর্ভোগ হয় যাত্রীদের। পদ্মা সেতু চালু হলে ফেরিঘাটে ভোগান্তি হবে না। সরাসরি সেতু পার হয়ে স্বল্প সময়ে ঢাকায় যাওয়া যাবে। ঢাকাগামী বাসযাত্রী সালহা বেগম জানান, পদ্মা সেতু চালু হলে রাজধানী ঢাকায় যাতায়াতে মানুষের সময় সাশ্রয় হবে। এতে মানুষ উপকৃত হবে। আরেক বাসযাত্রী মো. শাহিন বলেন, বরিশাল থেকে ঢাকায় যেতে কখনো ৭ থেকে ৮ ঘণ্টাও লাগে। পদ্মা সেতু চালু হলে ৫ ঘণ্টায় গন্তব্যে যাওয়া যাবে। সময় বাঁচবে ৩ ঘণ্টা। নগরীর নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনালের ঈগল পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার মো. ফয়সাল বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে ঢাকার দূরত্ব কমবে। সে ক্ষেত্রে নতুন ভাড়া নির্ধারিত হবে। এতে জনগণ উপকৃত হবে। এদিকে পদ্মা সেতু চালু হলে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে যানবাহনের চাপ আরও বাড়বে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। সে ক্ষেত্রে ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার সিঙ্গেল লেন মহাসড়কে যানজটের পাশপাশি গতিও কমবে বলে আশঙ্কা ট্রাকচালক মো. আলামিনের। পদ্মা সেতুর সুফল পুরোপুরি কাজে লাগাতে ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার মহাসড়ক জরুরি ভিত্তিতে প্রশস্ত করার দাবি জানান তিনি।
বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মো. আমিন-উল আহসান বলেন, পদ্মা সেতু দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার অর্থনীতির সম্ভাবনার দ্বার খুলে দেবে। মানুষ দ্রুততম সময়ে ঢাকা যাতায়াত করতে পারবে। কর্মসংস্থান বাড়বে। পর্যটন শিল্পেও গতি পাবে। সেতু উদ্বোধনের পর যানবাহনের চাপ সামলাতে ফোর লেন বাস্তবায়নের আগে বরিশাল-ভাঙ্গা মহাসড়কের সোল্ডার (দুই পাশ) ৩ ফুট করে প্রশস্তকরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here