জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে কৃষিখাত

0
67

কৃষি সংবাদদাতা: গত শনিবার গাজীপুরের শ্রীপুরে সিসিডিবি ক্লাইমেন্ট চেঞ্জ সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে কৃষিখাত সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হবে। তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলা করে যে কোনো মূল্যে দেশের সকলের জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে।


কৃষিমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে কৃষিক্ষেত্রে যে ক্ষতি হবে তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি হুমকির মধ্যে রয়েছে গ্রামের কৃষকেরা। কারণ দেশের ৬০ থেকে ৭০ ভাগ মানুষ দরিদ্র এবং কৃষির উপর নির্ভরশীল। তাই কৃষিকে সবার আগে জলবায়ু পরিবর্তনের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে। এটাই প্রথম চ্যালেঞ্জ। একই সঙ্গে অন্যান্য সেক্টরকেও মোকাবেলা করতে হবে।
তিনি বলেন, কৃষিক্ষেত্রে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানোর বিষয়ে সরকার কাজ করছে, একই সঙ্গে জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলা করে কৃষি উৎপাদন বাড়ানোর জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে।


দেশের উপকূলীয় অঞ্চলের ২ মিলিয়ন হেক্টর জমি লবণাক্ততায় আক্রান্ত উল্লেখ করে কৃষি মন্ত্রী বলেন, লবণাক্ততা সহিষ্ণু বিভিন্নজাত ইতিমধ্যে গবেষণার মাধ্যমে আবিস্কার হয়েছে, যা কৃষকদের মাঝে প্রচুর সাড়া ফেলেছে।
গাজীপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন সবুজ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সারা বিশ্বে এক ধরনের পরিবর্তনের প্রভাব দেখা যাচ্ছে। সেই দিক বিবেচনায় সিসিডিবি’র এই জলবায়ু পরিবর্তন সেন্টার দক্ষিণ এশিয়া-সহ সারা বিশ্বে প্রভাব ফেলবে বলে আমি বিশ্বাস করি। সারা বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য যারা দায়ী তাদেরকে চাপ সৃষ্টি করে ক্ষতিপূরণ আদায় ও তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার দাবি জানান স্থানীয় এই সংসদ সদস্য।


পানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত বলেন, বর্তমানে জলবায়ুর অস্বাভাবিক আচরণ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যখন বৃষ্টি হওয়ার কথা তখন বৃষ্টি হচ্ছে না, আবার যখন হচ্ছে তখন হওয়ার কথা না। জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে পৃথিবীর ১৯৬টি দেশ নড়েচড়ে বসেছে। এক্ষেত্রে মূল বিষয় হচ্ছে দায়িত্ব নেবে কে। জলবায়ুর এই পরিবর্তনে খাদ্য উৎপাদন অনেকাংশে কমে যাবে। বিশেষ করে ধান ও গম আলু উৎপাদন কমে যাবে।
জলবায়ু বিজ্ঞানী ড. সালিমুল হক, জলবায়ু পরিবর্তন শুধুমাত্র এশিয়ার বিষয় নয়, এটি সারা বিশ্বের জন্য এক ধরনের হুমকি। বর্তমান সময়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যে ঘুর্ণিঝড়ের সৃষ্টি হচ্ছে তা জলবায়ুর জন্য হুমকি।


অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, ব্রেড ফর দ্যা ওয়ার্ল্ড-জার্মানির পক্ষ থেকে প্রতিনিধি মিস পেট্রা বারনার, সিসিডিবি কমিশনের চেয়ারম্যান ডেভিড এ হালদার, অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন খ্রীস্টিয়ান কমিশন ফর ডেভেলপমেন্ট ইন বাংলাদেশ (সিসিডিবি) এর নির্বাহী পরিচালক জুলিয়েট কেয়া মালাকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here