মুন্সিগঞ্জে হিমাগারগুলোতে সংরক্ষণের জায়গা না থাকায় আলুর পচন

0
37

আব্দুল মান্নান সিদ্দিকী: মুন্সিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলার হিমাগারগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণ জায়গা না থাকায় কৃষকরা তাদের উঁচু জমি ও বাড়িতে আলু সংরক্ষণ করেছিলেন, ন্যায়সঙ্গত দাম না পাওয়ায় দীর্ঘদিন ঘরে ও উঁচু জমিতে থাকা আলুর পচন ধরেছে। প্রতিদিনই তাদের সংরক্ষিত আলু থেকে পচনশীল আলু ফেলে দিতে বাধ্য হচ্ছে। বাছাইকৃত আলু যে দামে বিক্রি হচ্ছে জমিতে যে টাকা খরচে আলু উৎপন্ন করেছিলেন তার অর্ধেক দামে বিক্রি করা হচ্ছে বলে জানান ভুক্তভোগী আলু চাষী।

এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন তারা। এদিকে প্রকৃত চাষী তার উৎপাদিত আলুর ন্যায়সঙ্গত মূল্য থেকে বঞ্চিত হলেও বর্তমানে আলুর বাজার চড়া। মুন্সিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন বাজারে এ প্রতিনিধি পরিদর্শন করে জানতে পারেন ডায়মন্ড আলু ৩০ টাকা ও বেল আলু ২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। রতন নামক বিক্রেতা এ প্রতিনিধিকে জানান, পাইকারি বাজারে আলুর দাম চড়া তাই বাধ্য হয়েই বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহে যে আলু বিক্রি হয়েছে ২০ টাকায় তা এখন ২৫ টাকা, ডায়মন্ড ২৫ টাকা বর্তমানে ৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বর্ষাকালে আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশঙ্কা করছেন, তিনি আরো জানান বাজার নিয়ন্ত্রণ আসবে শীতকালে নতুন আলু আসার পর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here