হাভার্ড ও এমআইটি’র উদ্যোগে আসছে করোনা শনাক্তকারী মাস্ক

0
150

প্রযুক্তি ডেস্ক: করোনা মহামারিতে আক্রান্ত বিশ্ব। এই করোনাকে প্রতিরোধ করতে বিশ্বের নানা দেশের নানান সংস্থা নিজস্ব প্রযুক্তিতে কিছু করতে উঠে পরে লেগেছে। নতুন এক প্রযুক্তির ফেইস মাস্ক তৈরির প্রকল্প নিয়েছেন বিশ্বখ্যাত ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বায়োইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব ও হার্ভাড ইউনিভার্সিটির গবেষকরা।

কোনো ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে মুখে পরা এই মাস্কটিতে লাল আলো জ্বলতে থাকবে। ফলে কেউ করোনা আক্রান্ত কিনা তা জানার জন্য নমুনা দিয়ে ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করতে হবে না।

এমআইটির তৈরি করা নতুন প্রযুক্তির ফেইস মাস্ক সেন্সরের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করে লাইট জ্বালিয়ে সিগনাল দিতে পারবে। রোগীর হাঁচি-কাশি বা নিঃশ্বাসের মধ্যে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি থাকলেই মাস্কটিতে আলো জ্বলবে। ফলে মাস্কটি ভিড়ের মধ্যে চলতে, কর্মক্ষেত্রে খুবই কার্যকর হবে। বিশেষভাবে এটি কার্যকর হবে বিমানবন্দরে। এই প্রযুক্তির মাস্ক তৈরি হলে গায়ের তাপমাত্রা মেপে আর জ্বর পরীক্ষা করার প্রয়োজন হবে না।
গবেষণা দলটির প্রধান জিম কলিন্স জানান, এই মাস্ক ব্যবহারে সবচেয়ে বড় সুবিধা পাবেন চিকিৎসকরা। কারণ এই মাস্ক পরিহিত থাকলে কোনো রোগী করোনায় আক্রান্ত তা সহজেই চিকিৎসকরা বুঝতে পারবেন। রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে তা ল্যাবে পাঠানোরও আর প্রয়োজন হবে না। ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টের জন্য অপেক্ষাও করতে হবে না। ফলে আক্রান্ত রোগীর জন্য দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থাও নেওয়া সম্ভব হবে।

জিম কলিন্স আরও বলেন, এখনও মাস্ক তৈরির প্রকল্পটি প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। বর্তমানে লালা থেকে নমুনা নিয়ে করনা ভাইরাস শনাক্তে সেন্সরের ক্ষমতা পরীক্ষা করছেন তারা। এছাড়াও, সেন্সর কোথায় বসানো হবে তা নিয়ে চলছে গবেষণা। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই প্রকল্পটির বাস্তব রূপ দেখানো হবে। এরপর পরীক্ষামূলকভাবে এর ব্যবহার শুরু করা যাবে।


এর আগে ইবোলা, সার্স, ইনফ্লুয়েঞ্জা, হেপাটাইটিস সি ও অন্যান্য ভাইরাস শনাক্তেও সেন্সর তৈরি করেছে এমআইটির বায়োইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাবটি। তবে সেন্সর বসিয়ে ফেইস মাস্ক তৈরির প্রকল্প এই প্রথম।
সুত্র: দ্যা সায়েন্স টাইমস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here